Dr. Imran ডাঃ দেলোয়ার জাহান ইমরান ➤ ডিএইচএমএস - বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল; ঢাকা
➤ ডিএমএস, বিএসসি এন্ড এমএসসি(+মেডিক্যাল ফিজিক্স) - ঢাকা
➤ হোমিওপ্যাথিক ডক্টর এন্ড প্রাইভেট প্র্যাক্টিশনার (নিবন্ধন নং : ৩৩৪৪২)
➤ আনোয়ার টাওয়ার, আল-আমিন রোড, কোনাপাড়া, যাত্রাবাড়ী, ঢাকা।
➤ ফোন : +৮৮ ০১৬৭১-৭৬০৮৭৪ এবং ০১৯৭৭-৬০২০০৪
➤ সাক্ষাৎ : সকাল ১০ থেকে বিকাল ৫ টা
➤ প্রোফাইল ➤ ফেইসবুক ➤ ভিডিও

আইবিএস নির্মূল

পেটের পীড়া আইবিএস নির্মূলের স্থায়ী চিকিৎসা হোমিওপ্যাথি।

ভেরিকোসিল

ভেরিকোসিলের অপারেশনবিহীন স্থায়ী চিকিৎসা হোমিওপ্যাথি।

পুরুষ বন্ধ্যাত্ব

পুরুষদের বন্ধ্যাত্ব সমস্যা নির্মূলের কার্যকর চিকিৎসা হোমিওপ্যাথি।

নারী বন্ধ্যাত্ব

নারীদের বন্ধ্যাত্ব সমস্যা নির্মূলের কার্যকর চিকিৎসা হোমিওপ্যাথি।

নারী স্বাস্থ্য
স্ত্রীরোগ
নারীদের অর্থাৎ স্ত্রীরোগ সম্পর্কিত বিষয়াবলী
মা ও শিশু
স্বাস্থ্য
মা ও শিশু স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিষয়াবলী
পুরুষদের
স্বাস্থ্য
পুরুষদের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিষয়াবলী
রোগ-ব্যাধি
অসুখবিসুখ
নানা প্রকার রোগ-ব্যাধি সম্পর্কিত বিষয়াবলী
স্বাস্থ্য বিষয়ক
টিপস
স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যাবতীয় টিপস ও ট্রিকস

Sunday, March 29, 2020

দুরারোগ্য স্বাস্থ্য সমস্যা আইবিএস "IBS" স্থায়ী ভাবে নির্মূলে হোমিওপ্যাথি (প্রামাণ্য কেইস)

হোমিওতে আইবিএস "IBS" স্থায়ী ভাবে নির্মূল হয়। বর্তমান বিশ্বে আইবিএস "IBS - Irritable bowel syndrome" দুরারোগ্য সমস্যা গুলির একটি। আইবিএস এর মূলত কোন এলোপ্যাথিক স্থায়ী চিকিৎসা নেই। ইতিপূর্বে আমার চিকিৎসায় ক্লাসিক্যাল এবং রিয়েল হোমিওপ্যাথি অনুসরণ করেই বহু রোগীর আইবিএস "IBS" নির্মূল হয়েছে। তাদের মধ্যে যারা ভিডিওতে আসতে চায় তাদের নিয়ে আমি প্রামাণ্য ভিডিও তৈরী করি কিন্তু খুব কম সংখ্যক রোগীই ভিডিওতে আসতে চায়। ইতিপূর্বে মামুন সাহেবের ভিডিওটি দিয়েছিলাম যিনি দীর্ঘ ১৫ বছর আইবিএস "IBS" সমস্যায় ভুগছিলেন এবং ঢাকা, মালয়েশিয়া এবং সিঙ্গাপুরে ডাক্তার দেখিয়েছেন। তিনি প্রায় ৮ লক্ষ টাকা খরচ করেছেন এই সমস্যার চিকিৎসা নিতে গিয়ে। আজ তারই কেইস... বিস্তারিত থাকছে.....
নাম : মামুনুর রশিদ (৪৭)
পেশা : ব্যবসা (ব্যায়ামবিদ)
বিয়ে : ২২ বছর
----
---
------------------------------------
- প্রচন্ড ক্ষুধা এবং পেটে জ্বালা
-খওয়ার পরই টয়লেটের চাপ
-পাতলা পায়খানা
-আমাশয়, আলসার
- কোন দুঃসংবাদ শুনলেই পেটের পীড়া বেড়ে যায়
-পাইলস
-পায়খানার সাথে রক্ত
-রক্তচাপের সমস্যা - ঔষধ খেতে হয়
- অনিদ্রা - ঔষধ খেতে হয়
- বুকে কফ জমে থাকে
-------------------------------------
- ১৬ বছর পূর্বে একবার হলে সিনেমা দেখতে গিয়ে কয়েক জন লোক জোর করে কি যেন খাইয়ে অজ্ঞান করে দেয়, তারপর থেকে সমস্যার শুরু ...
- এরপর থেকে টানা বহু বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দেখিয়ে ঔষধ সেবন চলেছে ১৫ বছর যাবৎ
-------------------------------------
Thirst: Extreme
Tongue: Ulcerated left side and edge black color
Saliva: NAD
Appetite: Ravenous
Desire: Cold, Bitter, Egg, Milk
Agg: Milk (Diarrhoea)
Perspiration: NAD
Stool: Soft, sometimes thin, Mucous profuse, Eating after agg, Flatus during
Urine: NAD
Genitalia: Impotence
-------------------------------------
- ছোটবেলা থেকেই ঠান্ডায় ভুগছেন
-৬ বছর বয়সে Rectal Prolapse হয়েছিল, আমাশয় আর পাতলা পায়খানা হতো
-ইতিপূর্বে টনসিলের অপারেশন করিয়েছেন
-ঠান্ডায় গলাব্যথা, হাঁচি,
- এলার্জি
- জন্ডিসে ভুগেছেন
-কুকুরের কামড়ের ভেক্সিন নিয়েছেন
----------------------------------
- মিশুক মানুষ, প্রাণ খোলা, সবার সাথেই দিল খুলে মিশে
- কারো দুঃখ সহ্য করতে পারেন না, দুঃখীদের সাহায্যে এগিয়ে আসেন, যেকেউ সাহায্য চাইলে এগিয়ে আসেন। মানবতার সেবায় নিবেদিত প্রাণ।
- ঘুরে বেড়াতে ভালোবাসেন
- বন্ধবান্ধব অনেক - ছোট বেলা থেকেই
---------------------------------
  • Father: CVA
  • Mother: DM, Kidney problem, Stomach Disorder
  • GF: N/A
  • GM: N/A
  • GF (M): N/A
  • GM (M): N/A
First Prescription: CV 0/2 then CV 0/3 (For PTS) and then..
Second Prescription: Bacillinum 0/3 (For TD)
Bacillinum 0/3 - (Improvement) চললো ৪ মাস প্রায় বাকিটা ভিডিওতে....
শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর অধিকাংশই হোমিওপ্যাথি সম্পর্কে তেমন ভালো জ্ঞান রাখেন না। অনেকেই হোমিওপ্যাথিকে এলোপ্যাথির মতো মনে করেন এবং রোগের নাম দিয়ে ঔষধ খেতে চান। হোমিওতে একটি ঔষধ প্রয়োগ করতে হলে আপনার নিজের জীবনদর্শন, আপনার পিতা-মাতা, দাদা-দাদী, নানা-নানীর তথ্যাদির প্রয়োজন হয় যখন আপনি দুরারোগ্য কোন স্বাস্থ সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে পড়েন। আপনার আরোগ্যের জন্য একটি ঔষধ বের করতে চিকিৎসককেও অনেক যত্নবান হতে হয় এবং বেশ মাথা খাটাতে হয়। উক্ত ব্যক্তি যে ঔষধে সেরেছেন আপনি ভাববেন না অন্যরাও ঠিক একই ঔষধে সেরে যাবেন। বরং অন্যরা এই ঔষধ গ্রহণে উল্টো রোগ জটিলতা আরো বাড়তে পারে। আপনার জন্য যে ঔষধ প্রয়োজন সেটা একজন অভিজ্ঞ হোমিও চিকিৎসকই আপনাকে সিলেক্ট করে দিতে পারেন। ওহ হে, এখানেই শেষ নয় ! ঔষধটি কখন কোন মাত্রায় আপনার শরীরে কিভাবে প্রয়োগ করতে হবে সেটাও অনেক বড় একটি ফ্যাক্টর। ভাববেন না - ঔষধ বাজার থেকে কিনে আনলাম, খেলাম আর রোগ ভালো হয়ে গেলো। জটিল স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে স্থায়ী ভাবে মুক্তি পেতে আপনার চিকিৎসককে অবশ্যই প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী দিয়ে সাহায্য করতে হবে।

হোমিওতে নির্দিষ্ট রোগের কোন নির্দিষ্ট ঔষধ নেই। আপনি যদি হোমিও চিকিৎসা নিতে চান তাহলে আগেই আপনাকে একজন ক্লাসিক্যাল হোমিও চিকিৎসক খুঁজে বের করতে হবে। তারপর যাবতীয় তথ্যাদি দিয়ে যদি চিকিৎসককে সাহায্য করতে পারেন তাহলে পা থেকে মাথা পর্যন্ত সব সমস্যাই দূর হয়ে দেহ আবার নীরোগ হয়ে উঠবে হোমিও চিকিৎসায়। আপনি কি রোগে আক্রান্ত হয়েছেন এখানে সেটা বিবেচ্য বিষয় নয়। মামুন সাহেবের কেইসটি দেখুন - উনি কতগুলি রোগে আক্রান্ত ছিলেন। অথচ উনার নির্দিষ্ট কোনো রোগের ট্রিটমেন্ট করা হয়নি । মূলত উনার হিস্ট্রি নিয়ে ঔষধ প্রয়োগকরা হয়েছে । তার শরীরে সব সমস্যাই চলে গেছে। উনার পাইলস নেই, প্রেসারের সমস্যা নেই, অনিদ্রা নেই সাথে IBS এর সমস্যাও চলে গেছে। এটাই হলো হোমিওপ্যাথি, যার মাধ্যমে শরীরকে আবার নীরোগ অবস্থায় ফিরিয়ে আনা হয়। ধন্যবাদ।
বিস্তারিত

Monday, February 24, 2020

আইবিএস IBS স্থায়ী ভাবে নির্মূলের কার্যকর চিকিৎসা টেকনিক

আব্দুর রহিম হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর থেকে আসেন আইবিএস IBS - Irritable Bowel Syndrome এর চিকিৎসা নিতে ২১ এপ্রিল ২০১৯ সালে। বয়স ২২ বছর। দীর্ঘ ৮/৯ বছর  বছর যাবৎ পেটের পীড়া আইবিএস সমস্যায় ভুগছেন। একটি অস্বস্থিকর জীবন যাপন করে আসছেন। বহু ডাক্তার দেখিয়ে আর বহু চিকিৎসা নিয়েও ফল হচ্ছে না।

যে যে লক্ষণগুলির কথা বলেছিলেন

  • পেট ফুলে থাকে 
  • টক ঝাল ঢেকুর আসে 
  • নিচ পেটে ভুটভাট শব্দ হতে থাকে 
  • পেটের অস্বস্থি যেন তার নিত্য সঙ্গী 
  • বমি বমি ভাব লেগে থাকে সব সময় 
  • গাড়িতে এবং লঞ্চে চড়তে পারে না 
  • কখনো আমাশয়ে ভুগেন 
  • আবার কখনো কোষ্ঠবদ্ধতায় ভুগেন 
  • টয়লেট কখনো পরিষ্কার হয় না 

চিকিৎসার সময় কাল

  • চিকিৎসা শুরু : ২১ই এপ্রিল ২০১৯
  • সমস্যার  সমাপ্তি: ১৮ই  অক্টবর ২০১৯
  • অবজারভেশন : নভেম্বর, ডিসেম্বর ২০১৯
  • চিকিৎসা সমাপ্তি: ডিসেম্বর ২০১৯
এখন পর্যন্ত তার আইবিএস IBS এর সমস্যা নিয়ে আর কোন অভিযোগ নেই। আল-হামদুল্লিয়াহ।
বিস্তারিত ভিডিওতে দেখুন......

যারা আইবিএস IBS এ ভুগছেন

আইবিএস সমস্যা নির্মূলের একমাত্র উন্নত চিকিৎসা হলো হোমিওপ্যাথি। যারা আইবিএস IBS এ ভুগছেন তারা হয়তো ভাবছেন হোমিওপ্যাথিক ঔষধ টানা কয়েক মাস খেয়ে গেলেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়ে যাবেন। না, মোটেও না ! এটি একটি জটিল চিকিৎসা টেকনিক। আপনি যদি এক্সপার্ট কোন হোমিও চিকিৎসকের তথ্যাবধানে চিকিৎসা না নেন তাহলে আপনার আইবিএস থেকে মুক্তি লাভ হয়তো স্বপ্নই থেকে যাবে।

কিন্তু কেন ? কারণ, আইবিএস নির্মূল করতে হয় মূলত হোমিওপ্যাথির ক্লাসিক্যাল টেকনিক ফলো করে এবং এক্ষেত্রে রিয়েল হোমিওপ্যাথি টেকনিক হলো সর্বোত্তম । আপনি এই চিকিৎসা হয়তো বহু ক্ষেত্রেই পাবেন না।
অনেকেই আপনাকে ৪ মাস, ৬ মাস, ৮ মাসের গদবাধা কিছু হোমিও ঔষধ দিয়ে একটা কোর্স ধরিয়ে আপনার কাছে ঔষধ বিক্রি করে যাবে আর আপনিও হয়তো নিজের অজ্ঞতার কারণে অযথাই ঐসব ঔষধ খেয়ে খেয়ে যাবেন। তাছাড়া কিছু কিছু হোমিও ঔষধ বিক্রেতা ডাক্তার রয়েছে যারা আপনাকে বলবে তাদের এখানে ২ বছর ঔষধ খেলে আপনি পার্মানেন্টলি কিউর হয়ে যাবেন। এই ধরণের কোন কথাই কোন হোমিও চিকিৎসক আপনাকে বলবে না। কারণ এভাবে আইবিএস আদৌ নির্মূল হয় না, একটু আরাম দিবে মাত্র। এটি মূলত করে থাকে হোমিওপ্যাথির ঔষধ ব্যবসায়ীরা। কারণ কয়েক মাসও যদি তারা রোগীদের কাছে ঔষধ বিক্রি করতে পারে তাহলে তারা লাভবান হয় (ঠিক এলোপ্যাথিক চিকিৎসার মত) আর যখন রোগী বুঝতে পারে তার তেমন কোন উপকার হচ্ছে না সাময়িক একটু উপশম ছাড়া তখন তারা আবার অন্যত্র চলে যায়। 
অভিজ্ঞ কোন হোমিও চিকিৎসক এই কাজটি কখনই করেন না। যারা এ বিষয়ে সতর্ক নয় অথবা বিষয়টি সম্পর্কে অজ্ঞ তারা পরিনামে অনেক দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। এ পর্যন্ত আইবিএস IBS এর চিকিৎসা দিতে গিয়ে কেইস টেকিং এর সময় এই রকম গল্পই শুনে আসছি বহু ক্ষেত্রে। 

ভাল হোমিও চিকিৎসক বুঝবেন কিভাবে ?

ভালো একজন হোমিও চিকিৎসক আপনাকে নির্দিষ্ট সময় পর পর ঔষধ প্রয়োগ করে করে আপনাকে ইম্প্রোভমেন্টে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করবেন এবং এক সময় আপনিও মামুন সাহেব, সোহান, রাসেল, শাওন বা আব্দুর রহিমদের মত সুস্থ হয়ে যাবেন।

আগেই বলেছি, আইবিএস IBS স্থায়ী ভাবে নির্মূলের কার্যকর চিকিৎসা হলো হোমিওপ্যাথির ক্লাসিক্যাল টেকনিক অর্থাৎ ক্লাসিক্যাল হোমিওপ্যাথি অথাৎ রিয়েল হোমিওপ্যাথি। যারা বলে এই সমস্যা নির্মূল হয় না তারা মূলত নিজেদের অজ্ঞতা বা মূর্খতা বশতঃ এই ধরণের কথা বলে থাকেন, অথবা নিজের নামের পেছনে উচ্চ উচ্চ ডিগ্রী লাগালেও বাস্তব ক্ষেত্রে অর্থাৎ ডাক্তারি করে রোগ সারাবার ক্ষেত্রে তাদের যোগ্যতা বহুগুন্ কম। মনে রাখা ভালো, একজন চিকিৎসকের যোগ্যতা প্রকাশ পায় রোগীর রোগ সারানোর দক্ষতার উপর নিজের নামের পেছনে উঁচু উঁচু ডিগ্রী লাগানোর মধ্যে নয়। যে চিকিৎসক যত বেশি ক্রনিক রোগ সারাতে দক্ষ তিনিই তত ভাল চিকিৎসক। তিনি হোমিওপ্যাথি, এলোপ্যাথি, আয়ুর্বেদ বা যে ঔষধই প্রয়োগে এক্সপার্ট হোন বা কেন।

জেনে রাখা ভালো, হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা সম্পর্কে আমাদের শিক্ষিত সমাজের ৮০% এরই সঠিক এবং প্রকৃত কোন জ্ঞান নেই। অনেকেই আবার এলোপ্যাথির সাথে হোমিওপ্যাথিকে গুলিয়ে ফেলেন। মনে রাখতে হবে দুটিই আলাদা চিকিৎসা পদ্ধতি। বহু দুরারোগ্য রোগ রয়েছে যেগুলির এলোপ্যাথিক চিকিৎসাই নেই অথচ সেগুলি হোমিও চিকিৎসায় ঠিক হয়ে যাচ্ছে। তাই যেকোন চিকিৎসা নেয়ার পূর্বেই আপনাকে জানতে হবে কোন চিকিৎসা পদ্ধতিতে কোন রোগের স্থায়ী চিকিৎসা রয়েছে। ধন্যবাদ।
বিস্তারিত

Sunday, December 1, 2019

টেস্টিকুলার বা অণ্ডকোষের ক্যান্সার Testicular Cancer ! পুরুষদের একটি ভয়াবহ রোগ

টেস্টিকুলার বা অণ্ডকোষের ক্যান্সার Testicular Cancer মূলত পুরুষদের একটি ভয়াবহ রোগ।  এর আগের একটি আর্টিকেলে অন্ডকোষের টিউমার সম্পর্কে আলোকপাত করেছিলাম। শুধু পুরুষকে আক্রান্ত করে এমন এক ক্যান্সার হলো টেস্টিকুলার বা অণ্ডকোষের ক্যান্সার। পৃথিবীতে প্রতি ২৬৩ জন পুরুষের মাঝে একজন এই ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। লক্ষণগুলো সহজে ধরা যায় না বলে এই রোগ আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করে। আসুন  টেস্টিকুলার ক্যান্সারের লক্ষণগুলি -
অণ্ডকোষে ব্যথাহীন একটি পিণ্ড : এই ক্যান্সারের সবচেয়ে বড় লক্ষণ হলো টেস্টিকল বা অণ্ডকোষে ব্যথাহীন একটি লাম্প বা পিণ্ড। এতে কোনো ধরণের ব্যথা বা অস্বস্তি দেখা যায় না, ফলে তা খেয়াল করেন না অনেকে। অণ্ডকোষে কোনো পিণ্ড তৈরি হয়েছে কিনা তা নিয়মিত পরীক্ষা করুন।
অণ্ডকোষ বা অণ্ডথলি ভারী অনুভূত হওয়া : কোনো পিণ্ড না থাকলেও অনেক পুরুষের কাছে অণ্ডথলি বা স্ক্রোটাম ভারী অনুভূত হতে পারে, চাপা ব্যথাও হতে পারে। যত দ্রুত সম্ভব ডাক্তারকে জানান এ লক্ষণটি।

সময়ের আগেই বয়ঃসন্ধি : টেস্টিকুলার ক্যান্সার শুধু বয়স্কদেরই নয়, বরং টিনেজার বা বয়ঃসন্ধিকালের কিশোরদেরও হতে পারে। অন্য কিশোরদের তুলনায় আগে বয়ঃসন্ধির লক্ষণ যেমন স্বরভঙ্গ এবং গোঁফ-দাড়ি গজানোটা টেস্টিকুলার ক্যান্সারের লক্ষণ হতে পারে। এক্ষেত্রে দ্রুত অভিজ্ঞ একজন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

স্তনে ব্যথা : অনেকেই ভাবতে পারেন বিভিন্ন অসুস্থতার কারণে শুধু নারীদের স্তনে ব্যথা হয়। কিন্তু টেস্টিকুলার ক্যান্সারের কারণে পুরুষের স্তনে ব্যথা এমনকি তরল নিঃসরণ হতে পারে। কিন্তু কেন? অণ্ডকোষে টিউমার হলে সেখানে এক ধরণের প্রোটিন তৈরি হয় যা স্তনে এসব প্রতিক্রিয়া তৈরি করে। এ ঘটনায় বিব্রত না হয়ে অতিসত্বর তা ডাক্তারকে জানানো উচিত।
অণ্ডকোষের আকার পরিবর্তন : একটি অণ্ডকোষের তুলনায় অন্যটি ছোট বা বড় হওয়া, ফুলে যাওয়া বা একদিকে ঝুলে যাওয়া টেস্টিকুলার ক্যান্সারের উপসর্গ।

অণ্ডথলিতে পানি আসা : অণ্ডথলি বা স্ক্রোটামে পানি আসা স্বাভাবিক, কিন্তু সপ্তাহখানেক ধরে এই অবস্থা বজায় থাকাটা নিঃসন্দেহে অস্বাভাবিক। টিউমার থাকলে এমনটা হতে পারে। এর পাশাপাশি অন্যান্য উপসর্গ দেখা দিলে  অভিজ্ঞ কোন হোমিও ডাক্তারের পরামর্শ নিতে দেরি করবেন না।

পিঠে ব্যথা ও কাশি :  ক্যান্সার যখন মেটাস্টেসিস প্রক্রিয়ায় শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছড়ায় তখন এর একটি লক্ষণ হতে পারে পিঠে ব্যথা, কাশি এমনকি ঘাড়ে ফুলে থাকা পিণ্ড। শরীরের যে কোনো স্থানে পিণ্ড দেখা দিলেই তা পরীক্ষা করিয়ে নেওয়া জরুরী। কারণ এর অর্থ হতে পারে আপনার টেস্টিকুলার ক্যান্সার আছে এবং তা ছড়িয়ে পড়েছে।

তলপেটে ব্যথা: টেস্টিকুলার ক্যান্সার বেড়ে যাবার আরেকটি উপসর্গ হতে পারে তলপেতে ব্যথা। ফুলে যাওয়া লিম্ফ নোড এবং লিভারে এই ক্যান্সার ছড়িয়ে পড়ার কারণে পেটে ব্যথা হতে পারে।

এসব লক্ষণের যে কোনো একটি বা কয়েকটি শনাক্ত করতে পারলে অভিজ্ঞ কোন হোমিও ডাক্তারকে জানান দ্রুত। যত দ্রুত চিকিত্‍সা শুরু করতে পারেন, সুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা ততই বেশি। পুরুষের টেস্টিস বা অন্ডকোষ সংক্রান্ত যত সমস্যাগুলি হয়ে থাকে মূলত সেগুলির তেমন কোন এলোপ্যাথিক চিকিৎসা নেই। সেগুলির অধিকাংশগুলিই সার্জারি করে ঠিক করার চেষ্টা করা হয়ে থাকে যদিও এই স্থানে সার্জারি ততটা নিরাপদ নয়। তবে টেস্টিস বা অন্ডকোষ সংক্রান্ত রোগের উন্নত চিকিৎসা রয়েছে হোমিওপ্যাথিতে। এর জন্য অভিজ্ঞ কোন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 
বিস্তারিত

অন্ডথলিতে টিউমারের মতো ছোট ছোট গুটি - সেবাসিয়াস সিস্ট Sebaceous Cyst on Scrotum

অন্ডথলিতে  সেবাসিয়াস সিস্ট যাকে অনেকেই না বুঝে অন্ডকোষে ছোট ছোট গোটা, অন্ডকোষের ভিতরে গুটি, অন্ডকোষের থলিতে গুটি, অণ্ডকোষে গোটা,অন্ডকোষে টিউমার অন্ডকোষে দানা ইত্যাদি নাম অবহিত করে থাকেন। মূলত পুরুষদের অন্ডথলিতে টিউমারের মতো ছোট ছোট গুটিকা গুলি সেবাসিয়াস সিস্ট Sebaceous Cyst on Scrotum. এই সিস্টের ভেতর সাদা তরল ও চর্বিজাতীয় পদার্থ থাকে যাকে মূলত সেবাম বলা হয়ে থাকে। প্রাথমিক অবস্থায় এর কোনো ব্যথা থাকে না। কিন্তু কোনো কারণে ইনফেকশন হলে বা পেকে গেলে ভেতরে পুঁজের মতো দেখা যায়। এ সিস্টের একটা পাতলা আবরণ থাকে, যা ভেতরের সব পদার্থকে ঢেকে রাখে। দেখা যায় পুরুষদের যৌনাঙ্গে বা অন্ডকোষে ছোট ছোট মুক্তার দানার মত সিস্ট হচ্ছে। যা একটি দুটি থেকে অসংখ্য সংখ্যায় হতে পারে। যা দেখতে বেশি বিশ্রী বিব্রতকর এবং যে কখনো দেখেনি, সে হয়তো ভয় পেতে পারে। হোমিওপ্যাথি চিকিৎসায় এই সমস্যাটি অধিকাংশ সময়েই দূর হয়ে যায়।

অন্ডথলিতে সেবাসিয়াস সিস্ট - কারণ সমূহ 

  • সেবাসিয়াস গ্ল্যান্ডের ব্লক 
  • লোমকূপ ফুলে যাওয়া 
  • ত্বকে কোন ধরনের আঘাত 
  • পুরুষদের মাত্রাতিরিক্ত টেস্টোস্টেরোন হরমোন নিঃস্বরণ ইত্যাদি 
অন্ডথলিতে সেবাসিয়াস সিস্ট - লক্ষণ ও উপসর্গ 
  • স্ক্রোটামের ত্বকে শক্ত দলার মত ছোট ছোট গুটি অনুভূত 
  • ধীরে ধীরে গুটিকার পরিমান বাড়তে থাকে 
  • গুটিকাগুলি কয়েকটি থেকে অধিক পরিমান হতে পারে 
  • প্রথমে ব্যথা না হলেও পরে ব্যথা হতে পারে 
  • কারো ক্ষেত্রে চুলকানি হতে পারে 
  • টিপলে আঠালো সাদা পদার্থ বের হতে পারে 

অন্ডথলিতে সেবাসিয়াস সিস্ট - চিকিৎসা 

মূলত এই সমস্যা নির্মূলের কোন এলোপ্যাথিক চিকিৎসা নেই। এইগুলি মূলত সার্জারি করে অপসারণ করা হয়ে থাকে। যদি অল্প কয়েকটি হয়ে থাকে আর নতুন করে না হয় তাহলে সেগুলি সার্জারি করে সুফল পেতে পারেন। কিন্তু যখন অনবরত হতে থাকে তাহলে সার্জারি করলেও কোন ফল হয় না কারণ নতুন করে আবার হয়ে আগের মত হয়ে যায়। তবে এই সমস্যার ভালো হোমিও চিকিৎসা রয়েছে। অভিজ্ঞ হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে ট্রিটমেন্ট নিলে সুফল পাবেন আশা করি।
বিস্তারিত

Tuesday, November 19, 2019

এপিডিডাইমাল সিস্ট Epididymal Cyst পুরুষদের অন্ডকোষের রোগ ! উপসর্গ ও জটিলতা

এপিডিডাইমাল সিস্ট Epididymal Cyst পুরুষদের অন্ডকোষের রোগ। পুরুষদের প্রতিটি টেস্টিসের বা অণ্ডকোষের উপরের অংশ যেখানে বীর্য সংরক্ষিত হয় তাকে এপিডিডাইমিস বলে। এর মাধ্যমে শুক্রাণু টেস্টিকল থেকে স্পার্মাটিক নালীতে যেয়ে থাকে। এতে কোন ধরনের অস্বাভাবিক থলি বা সিস্ট ডেভেলপ করলেই তাকে এপিডিডাইমাল সিস্ট Epididymal Cyst বলা হয়।
এপিডিডাইমাল সিস্ট Epididymal Cyst উপসর্গ : ছোট আকারের কারণে প্রথমে এপিডিডাইমাল সিস্টের লক্ষণগুলি অনেকের ক্ষেত্রেই বুঝা যায় না। তার বৃদ্ধির সময় ব্যথা অনুভব করতে শুরু করে, এক সময় প্রসারিত সিস্টটি স্নায়ু এবং রক্তনালীগুলি সংকুচিত করতে শুরু করে। আরো যে যে লক্ষণগুলি দেখা যায়-
  • অণ্ডকোষে বা এপিডিডাইমিসে ব্যথা হয়
  • অণ্ডকোষ বা কুঁচকি ফোলে যেতে পারে
  • স্থানটি গরম হয়ে থাকতে পারে
  • মলত্যাগ করার সময় ব্যথা অনুভব করুন
  • বীর্যপাতের সময় বা যৌন মিলনের সময় ব্যথা
  • কারো কারো ক্ষেত্রে জ্বালাপোড়া হতে পারে
  • বেশি বড় হয়ে গেলে হাঁটতে অসুবিধা
  • জ্বর এবং আরও প্রদাহ হতে পারে
এপিডিডাইমাল সিস্ট Epididymal Cyst জটিলতা: কারো কারো ক্ষেত্রে কোন সমস্যা হয় না। কিন্তু যাদের ক্ষেত্রে তীব্র ইনফ্লামেশন তৈরি করে তাদের শুক্রাণু এবং টেস্টোস্টেরোন হরমোন উৎপাদনে বাধাগ্রস্থ হয়ে থাকে। বেশি বড় হয়ে গেলে অবস্ট্রাক্টিভ এজোস্পার্মিয়া বা পুরুদের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা তৈরী হয়ে থাকে। তাই ঠিক সময়ে চিকিৎসা না নিলে বহু ক্ষেত্রেই জটিল সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। 

এপিডিডাইমাল সিস্ট Epididymal Cyst চিকিৎসা: এলোপ্যাথিতে এই সমস্যা নির্মূলের কোন চিকিৎসা নেই। তাই এলোপ্যাথিক চিকিৎসকগণ এটিকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের আরেকটি শাখা সার্জারিতে ট্র্যান্সফার করে থাকে। কিন্তু সার্জারি করে এটি দূর করা হলেও অনেকের ক্ষেত্রেই সমস্যাটি আবার হতে দেখা যায়। তবে এপিডিডাইমাল সিস্ট Epididymal Cyst নির্মূলের একটি কার্যকর চিকিৎসা হলো হোমিওপ্যাথি। প্রথম পর্যায়ে এই সমস্যার ভালো একটি হোমিও চিকিৎসা নিলে অতি দ্রুত এই রোগ নির্মূল হয়ে যায়। কিন্তু বহু দিন যাবৎ ভুগতে থাকার পর অর্থাৎ ক্রনিক অবস্থায় এই রোগের হোমিও চিকিৎসা নিলে এই ভালো হতে বেশ সময় নিয়ে নেয়। তাই শুরুতেই অভিজ্ঞ কোন হোমিও ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন। 
বিস্তারিত

Wednesday, October 9, 2019

স্পার্মাটিক কর্ড বা শুক্রবাহী নালীতে টিউমার Spermatic Cord Tumor চিকিৎসা হোমিওপ্যাথি

পুরুষদের স্পার্মাটিক কর্ড বা শুক্রবাহী নালীতে অনেকের ক্ষেত্রে টিউমার হতে দেখা যায়। ঠিক কি কারণে Spermatic Cord Tumor হয় এর সঠিক কারণ অনেক ক্ষেত্রেই জানা যায় না। তবে অনেকের ক্ষেত্রে আঘাতের ফলেও এই টিউমার তৈরী হতে পারে। যখন এই সমস্যা হয় তখন অনেক পুরুষই বিষয়টি আমলে নেন না। এক সময় এটি তাদের বন্ধ্যাত্বের সমস্যাও তৈরী করতে পারে।
এখানে যে টিউমারগুলি হয়ে থাকে তাদের অধিকাংশই বিনাইন প্রকৃতির। যেমন লাইপোমা। তবে দেখা গেছে প্রায় ২৫% ক্ষেত্রে মালিগন্যান্ট প্রকৃতির কিছু টিউমার হয়ে থাকে। যেমন -
  • Liposarcoma
  • Leiomyosarcoma
  • Rhabdomyosarcoma
  • Malignant fibrous histiocytoma
  • Fibrosarcoma
স্পার্মাটিক কর্ড বা শুক্রবাহী নালীতে টিউমার হলে কি কি লক্ষণ বা উপসর্গ দেখা দিতে পারে আসুন জেনে নেই -
  • স্পার্মাটিক কর্ডে ফোলা অনুভূত হবে 
  • কারো ক্ষেত্রে শক্ত এবং কারো ক্ষেত্রে কিছুটা নরম অনুভত হতে পারে 
  • কারো ক্ষেত্রে ব্যথা অনুভত হতে পারে আবার কারো ক্ষেত্রে ব্যথা থাকে না
  • কারো ক্ষেত্রে শিরার পাশাপাশি অন্ডোকোষেও ব্যথা হতে পারে 
  • ইনফ্লামেশন বেশি থাকলে  অন্ডোকোষ ফোলে যেতে পারে 
স্পার্মাটিক কর্ড বা শুক্রবাহী নালীতে টিউমার হলে অবস্ট্রাক্টিভ এজোস্পারমিয়া বা একপ্রকার পুরুষ বন্ধ্যাত্ব হতে পারে। সঠিক সময়ে এই রোগের চিকিৎসা না নিলে এটি বেশ জটিল আকার ধারণ করে। এই সমস্যা নির্মূলের মূলত কোন ভালো এলোপ্যাথিক চিকিৎসা নেই। স্পার্মাটিক কর্ড বা শুক্রবাহী নালীতে টিউমার Spermatic Cord Tumor নির্মূলের উন্নত চিকিৎসা মূলত হোমিওপ্যাথি। তবে এর জন্য এক্সপার্ট একজন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শ ক্রমে চিকিৎসা নেয়া জরুরী। 
বিস্তারিত

Friday, September 27, 2019

টেস্টিস বা অন্ডকোষের টিউমার ! স্থায়ী মুক্তি হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা

পুরুষদের টেস্টিস বা অন্ডকোষে যখন টিউমার হয় তখন তাকে Testicular Tumor বলা হয়ে থাকে। টেস্টিস বা অন্ডকোষের টিউমার হয় এর প্রকৃত কারণ অজানা। অন্ডকোষের বা টেস্টিকুলার টিউমার মূলত ২০ থেকে ৩৫ বছর বয়সী পুরুষদের ক্ষেত্রেই বেশি হতে দেখা যায়।
এখানে বিভিন্ন প্রকারের টিউমার হতে দেখা যায়। Germ cell tumors (95%) যেগুলির মধ্যে রয়েছে Seminoma tumor (40%) এবং Nonseminoma tumors 60% এর মধ্যে রয়েছে Embryonal carcinoma, Teratoma, Testicular choriocarcinoma, Yolk sac tumor, Mixed germ cell tumors তারপর আরেক প্রকারের মধ্যে রয়েছে Non germ cell tumors (5%) এখানে রয়েছে Leydig cell tumors, Sertoli cell tumors এবং Secondary testicular tumors যেমন Lymphoma. যখন অন্ডকোষে টিউমার হয় তখন মূলত টেস্টিস হঠাৎ করে ফুলে যায়, অস্বাভাবিকভাবে বড় হয়ে যায়। কারো ক্ষেত্রে ব্যথা থাকে কারো ক্ষেত্রে থাকে না।
টেস্টিস বা অন্ডকোষের টিউমার - লক্ষণসমূহ
  • টেস্টিসের অস্বাভাবিকভাবে বড় হওয়া
  • টেস্টিস হঠ্যাৎ ফুলে যাওয়া
  • বেশিরভাগ সময় ব্যথা থাকে না
  • কখনও কখনও প্রচন্ড ব্যথা নিয়েও আসতে পারে
  • ছোট বাদাম আকার থেকে কোকোনাট সাইজ পর্যন্ত হতে পারে
  • দূরবর্তী স্থানে ছড়াইয়া পরতে পারে যেমনঃ পেটে, গলায়, ফুসফুসে ইত্যাদি স্থান
  • স্তন ফুলে যেতে পারে
টেস্টিস বা অন্ডকোষের টিউমার - চিকিৎসা 
এই সমস্যার তেমন কোন এলোপ্যাথিক চিকিৎসা না থাকলেও হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসায় অন্ডকোষের টিউমার দূর হয়ে যায়।
বিস্তারিত