বুধবার, ৬ জানুয়ারী, ২০২১

কিডনি সমস্যায় গ্লোমেরুলার ফিলট্রেশন রেট GFR এবং অ্যালবুমিন ও ক্রিয়েটিনিনের অনুপাত ACR পরীক্ষা

কিডনি সমস্যায় গ্লোমেরুলার ফিল্টারেশন রেট GFR এবং অ্যালবুমিন ও ক্রিয়েটিনিনের অনুপাত ACR পরীক্ষা বা টেস্ট করালেই ধরা পড়ে কিডনি ঠিকঠাক কাজ করছে কি না। ক্রনিক কিডনি ডিসিজ Chronic kidney disease (CKD) সমস্যাটি সাধারণ ভাবে ক্রনিক রেনাল ডিজিজ বা Chronic Renal Failure (CRF) নামেও পরিচিত। এটি এমন একটি অসুখ, যা লক্ষণ প্রকাশ ছাড়াই কয়েক বছরব্যাপী ধীরে ধীরে কিডনিকে এমনভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে যে কিডনি তার স্বাভাবিক কার্যক্ষমতা হারিয়ে ফেলে। এ অসুখে কিডনি ধীরে ধীরে আক্রান্ত হয়, সাধারণত রোগের শেষ পর্যায়ে অসুস্থতা প্রকাশ পায়। অর্থাৎ আগাম কোন লক্ষণ দেখে বোঝার বা চেনার উপায় নেই যে ভয়াবহ কিডনি রোগে আপনি আক্রান্ত হচ্ছেন। যে কারণে রোগ ধরতে ধরতেই অনেক দেরি হয়ে যায় বহু ক্ষেত্রেই।

যাদের কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কোন রকম আশঙ্কা রয়েছে অর্থাৎ কেউ যদি ডায়াবেটিস বা উচ্চ রক্তচাপের রোগী হয়ে থাকেন বা কারো পরিবারে কিডনির অসুখ থেকে থাকে বা যাঁদের বয়স ৬০ পেরিয়েছে, তাঁদের উচিত বছরে অন্তত দু-বার দুটো পরীক্ষা করানো। Albumin to Creatinine Ratio (ACR)  এবং (GFR) Glomerular Filtration Rate এই দুটো সিম্পল টেস্ট করালেই ধরা পড়ে যাবে আপনার কিডনি ঠিকঠাক কাজ করছে কি না।

মূত্র পরীক্ষা বা ACR

ACR হল অ্যালবুমিন ও ক্রিয়েটিনিনের অনুপাত। Albumin to Creatinine Ratio (ACR). অ্যালবুমিন হল বিশেষ ধরনের প্রোটিন। মূত্রে অ্যালবুমিন আছে কি না, পরীক্ষা করে সেটাই দেখা হয়। আমাদের শরীরের জন্য প্রোটিন অত্যন্ত জরুরি। যে কারণে রক্তে প্রোটিন থাকা খুব স্বাভাবিক। কিন্তু, এই প্রোটিন কখনোই মূত্রে থাকার কথা নয়। যদি মূত্র পরীক্ষায় প্রোটিন পাওয়া যায়, তার মানে হল, কিডনি ঠিকঠাক ভাবে রক্তকে ছাঁকতে পারছে না। তাই ইউরিন টেস্টে প্রোটিন পজিটিভ হলে, নিশ্চিত হতে তাঁর Nephron Filtration Rate (NFR) করাতে হবে। যদি, তিন মাস বা তার বেশি সময় ধরে রেজাল্ট পজিটিভ হয়, তা কিডনি রোগের লক্ষণ। এবার আসুন অ্যালবুমিন ও ক্রিয়েটিনিনের অনুপাত অর্থাৎ ACR এর মানগুলি দেখে আসি-
অ্যালবুমিন ও ক্রিয়েটিনিনের অনুপাত ACR

GFR নির্ণয় করতে রক্ত পরীক্ষা

কিডনি খারাপ হলে, তা রক্ত থেকে ক্রিয়েটিনিন অর্থাত্‍‌ বর্জ্য পদার্থ ঠিকমতো বের করে দিতে পারে না। তবে, এই ক্রিয়েটিনিন পরীক্ষা হল প্রথম ধাপ। এরপর গ্লোমেরুলার ফিলট্রেশন রেট বা (GFR) Glomerular Filtration Rate দেখতে হবে। সেই রেজাল্ট দেখেই বুঝতে পারবেন আপনার কিডনি কেমন কাজ করছে। এবার আসুন জেনে নেই গ্লোমেরুলার ফিলট্রেশন রেট বা (GFR) এর মান ভেদে ক্রনিক কিডনি রোগের পর্যায় বা স্টেজ সম্পর্কে-
  • Stage 1:  With normal or high GFR (GFR > 90 mL/min)
  • Stage 2:  Mild CKD (GFR = 60-89 mL/min)
  • Stage 3A:  Moderate CKD (GFR = 45-59 mL/min)
  • Stage 3B:  Moderate CKD (GFR = 30-44 mL/min)
  • Stage 4:  Severe CKD (GFR = 15-29 mL/min)
  • Stage 5:  End Stage CKD (GFR <15 mL/min)
  • Here mL/min = milliliters per minute
কিডনি নিয়ে তাই কোন রকম ভয় হলে, অযথা দুশ্চিন্তাগ্রস্ত না হয়ে, এই পরীক্ষাগুলো করে নিতে পারেন। 

ক্রনিক কিডনি ডিসিজ বা কিডনি ফেইলিওর - চিকিৎসা

এলোপ্যাথিক চিকিৎসা শাস্ত্রে ক্রনিক কিডনি ডিসিজ বা কিডনি ফেইলিওর এবং ক্রিয়েটিনিন কমানোর জন্য ভালো কোন ঔষধ নেই আর বাকিগুলি খেয়েও তেমন ফল হচ্ছে না বরং রোগ জটিলতা দিন দিন বাড়ছে। এ অবস্থায় হয়তো কিডনি বিকল হওয়ার কারণে ডায়ালিসিস, এমনকি কিডনি ট্রান্সপ্লান্ট করার চিন্তাও করছেন অনেকে। কিন্তু আপনার জেনে রাখা দরকার এইগুলি করেও শেষ রক্ষা হচ্ছে না অধিকাংশ ক্ষেত্রেই। সাথে তো মোটা অংকের একটা অর্থ ব্যায়ের দখল রয়েছেই। আপনি হয়তো জানেনই না ক্রিয়েটিনিন কমানো এবং ক্রনিক কিডনি ডিসিজ বা কিডনি ফেইলিওর এর চূড়ান্ত অবস্থায়ও কার্য্যকর এবং আশানুরূপ রেজাল্ট দিয়ে চলেছে হোমিওপ্যাথি। যদি কেউ ক্রনিক কিডনি ডিসিজ বা কিডনি ফেইলিওর সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে থাকেন এবং যাদের ক্রিয়েটিনিন এর লেভেল অনেক বেশি তারা দ্রুত রেজিস্টার্ড এবং দক্ষ একজন হোমিও চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করে সুচিকিৎসা নিন। ধন্যবাদ

যা যা জেনেছেন-

  • গ্লোমেরুলার ফিল্টারেশন রেট
  • Glomerular filtration rate
  • GFR normal range
  • eGFR test
  • eGFR calculation
  • GFR Calculator
  • GFR Definition
  • eGFR Test cost in Bangladesh
Dr Imran
ডাঃ দেলোয়ার জাহান ইমরান
ডিএইচএমএস (বিএইচএমসি এন্ড হসপিটাল), ডিএমএস; ঢাকা
রেজিস্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক (রেজিঃ নং-৩৩৪৪২)
যোগাযোগঃ আনোয়ার টাওয়ার, আল-আমিন রোড, কোনাপাড়া, ডেমরা, ঢাকা।
Phone: +88 01671-760874; 01977-602004 (শুধু এপয়েন্টমেন্টের জন্য)
About Me: Profile ➤ Facebook ➤ YouTube ➤