বুধবার, ৮ এপ্রিল, ২০২০

পুরুষদের ভেরিকোসিল Varicocele এর হোমিওপ্যাথিক ঔষধ ও চিকিৎসা

ইতিপূর্বে আপনারা জেনেছেন পুরুষদের ভেরিকোসিল Varicocele কেন হয়, কিভাবে হয়, এই রোগের লক্ষণ উপসর্গ জটিলতা, হোমিওপ্যাথিক কি কি পেটেন্ট ঔষধ রয়েছে এবং ভেরিকোসিলের বিভিন্ন সার্জারি পদ্ধতি ও এ সংক্রান্ত কি কি জটিলতা হতে পারে। এ পর্বে আমরা জানবো স্ক্রোটামের ভেরিকোসিল সমস্যা হলে রেপার্টরীর আলোকে এর হোমিওপ্যাথিক ঔষধ ও চিকিৎসা কি হতে পারে।

যেহেতু পুরুষদের জটিল এই রোগের কোন এলোপ্যাথিক ঔষধ বা চিকিৎসা নেই তাই অনেকেই ইন্টারনেট সার্চ করে নানা প্রকার হোমিওপ্যাথিক ঔষধের নাম জেনে নিজে নিজে সেগুলি খাওয়া শুরু করে দেয়। অথচ হোমিওপ্যাথিক ঔষধ প্রয়োগ করার নির্দিষ্ট নিয়মনীতি রয়েছে। এর বাহিরে গিয়ে এলোপ্যাথির মত হোমিও ঔষধ প্রয়োগ করলে আদৌ কোন কাজে আসে না, কিছু ক্ষেত্রে সাময়িক কিছুটা উপশম বা আরাম দিয়ে থাকে মাত্র। তাছাড়া ক্রমাগত স্থূল মাত্রায় হোমিও ঔষধ অনবরত খাওয়ার ফলে রোগ মুক্তি তো দূরের কথা কেউ কেউ উল্টো নানা প্রকার স্বাস্থ জটিলতায় আক্রান্ত হচ্ছেন। জেনে রাখা ভালো - আপনার সমস্যার উপযোগী নির্দিষ্ট হোমিওপ্যাথিক ঔষধ নির্দিষ্ট শক্তিতে নির্দিষ্ট মাত্রায় প্রয়োগ করাই হলো আপনার জন্য নিরাপদ। আর এটা করতে পারেন দক্ষ একজন হোমিও চিকিৎসক।

অনেকেই আমাকে ফোন করে বলেন স্যার, ইন্টারনেট সার্চ করে দেখলাম একজন হোমিও ডাক্তার ভেরিকোসিলের জন্য Hamamelis, Rhus Tox, Nux Vomica, Pulsatilla, Arnica খেতে বললেন। আমি ডাক্তার যেভাবে বললেন আমি সেভাবেই ঔষধ খেলাম কিন্তু আমার ভেরিকোসিল ভালো হয়নি।

আবার কেউ কেউ ফোন করে বলছেন একজন ডাক্তার আমাকে Aurum metallicum, Spongia, Conium, Calcarea fluor, Acid Fluor ইত্যাদি খেতে বললেন আমি তার কথায় নির্দিষ্ট নিয়মে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত ঔষধ খেলাম কিন্তু আমার ভেরিকোসিল ভালো হয়নি। কেউ কেউ বলছেন ইন্ডিয়ার এক ইউটিউবে ডাক্তারের পরামর্শে Dr. Reckeweg R42 Varicocele Drop, Rhododendron দীর্ঘ দিন যাবৎ খেয়েও আমার ভেরিকোসিল ভালো হয়নি বরং ভেরিকোসিলের গ্রেড আরো বেড়েছে।
হোমিওপ্যাথিতে নির্দিষ্ট রোগের নির্দিষ্ট কোন ঔষধ নেই। তবে রেপার্টরীতে নির্দিষ্ট নামের রোগের জন্য আপনি বহু হোমিও ঔষধ পেয়ে যাবেন। কিন্তু সেই ঔষধগুলি রোগীর বর্তমান সমস্যা, সার্বদৈহিক অবস্থা ও তার কস্টিটিউশনের আলোকে নির্দিষ্ট নিয়মনীতি অনুসরণ করে চিকিৎসকগণ নির্দিষ্ট মাত্রায় প্রয়োগ করে থাকেন। তাই একেক জনের ক্ষেত্রে কস্টিটিউশন অনুসারে একই নামের রোগের ক্ষেত্রে একেক রকম হোমিও ঔষধ আসবে।
ইন্টারনেটে এবং ইউটিউবে ডাক্তাররা বলছে, ঔষধ খেলেই আমি ভালো হয়ে যাবো অথচ তারা যেভাবে বলছে সেভাবে খেয়েও আমি সুস্থ হচ্ছিনা। এর কারণ মূলত কি? যারা সস্তা পাবলিসিটি করে বেড়ায়, ইউটিউবে সস্তা লাইক আর সাবস্ক্রাইব নেয়ার জন্য আপনাকে প্রলুব্ধ করে বেড়ায় তাদের প্রেসক্রাইব করা ভুল ঔষধ ভুল ভাবে আপনি আপনার শরীরে অযথাই প্রয়োগ করছেন হোমিওপ্যাথির কোন প্রকার নিয়মনীতি না মেনেই। আর তাই ঔষধও কাজ করছে না। আপনাকে আগে জানতে হবে এলোপ্যাথি আর হোমিওপ্যাথি দুটি সম্পূর্ণ আলাদা চিকিৎসা শাস্ত্র। দুইটার চিকিৎসক, মেডিসিন এবং মেডিসিনের প্রয়োগ পদ্ধতি সম্পূর্ণ ভিন্ন। হোমিও ঔষধ প্রয়োগ করার নির্দিষ্ট নিয়মনীতি রয়েছে। এর বাহিরে গিয়ে এলোপাথির মতো সারা জীবন ধরে হোমিও ঔষধ খেয়ে গেলেও আপনার কোন উপকারে আসবে না বরং উল্টো ক্ষতিগ্রস্থ হবেন নিজের অজান্তেই।

এবার আসুন ভেরিকোসিল চিকিৎসায় কি কি হোমিও ঔষধ ব্যবহার করা যেতে পারে সে সম্পর্কে বিশদ আলোচনায় যাই। প্রথমেই দেখুন James Tyler Kent এর রেপার্টরীতে Genitalia অধ্যায়ে Varicocele এর জন্য কি কি ঔষধ নির্দেশ করা আছে -
Hering's The Guiding Symptoms of Our Materia Medica এ ভেরিকোসিলের কি কি ঔষধ নির্দেশ করা আছে -
এবার আসুন জনপ্রিয় Synthesis Repertory তে পুরুষদের ভেরিকোসিলের জন্য কি কি ঔষধ নির্দেশ করা আছে 
ঔষধের নামের অক্ষরের স্টাইল এবং কালার মূলতঃ ঔষধের গুরুত্ব অনুসারে তাদের গ্রেড বুঝানো হয়ে থাকে। বিষয়টা আমার ভিডিওটি দেখলেই ভালো ভাবে বুঝতে পারবেন। হয়তো খেয়াল করলে দেখতে পাবেন সবগুলি রেপার্টরি প্রায় একই ঔষধ নির্দেশ করছে। আর পুরুষদের অন্ডথলির শিরাস্ফীতি বা ভেরিকোসিলের জন্য সর্বাগ্রে হোমিও চিকিৎসকগণ এই ঔষধগুলিই চিন্তা করে থাকেন তাও আবার যারা রেপার্টরি ব্যবহার করতে জানেন।

আপনারা যারা ইন্টারনেট বা ইউটিউব সার্চ করে করে ঔষধের নাম জানতে চান তারা মূলত ঘুরে ফিরে এই ঔষধ গুলিই পেয়ে থাকেন। কিন্তু রোগের ঔষধ সাজানো আছে অথচ ঔষধ খেয়েও আপনার রোগ সারছে না কেন ? উত্তর খুব সহজ। আপনি এলোপ্যাথিক নিয়মে হোমিওপ্যাথিক ঔষধ খেয়ে আদৌ কোন রেজাল্ট পাবেন না কিছুটা উপশম ছাড়া। এখান থেকে ঔষধ প্রয়োগ করতে হলে আপনার বিস্তারিত তথ্যাদির অনুসন্ধান করা জরুরি এবং হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার রয়েছে নিজস্ব নিয়মনীতি। সেই আলোকে একজন অভিজ্ঞ হোমিও চিকিৎসকই মূলত মেডিসিন সিলেক্ট, মাত্রা নির্ণয় এবং প্রয়োগের মতো কঠিন কাজটি করতে পারেন।

যেমন ধরুন এখানে একটি মেডিসিন আছে Lachesis. এই ঔষধ প্রয়োগ করতে হলে ঔষধটির একটি সার্বিক চরিত্র আপনার মধ্যে থাকতে হবে তা নাহলে এই ঔষধ আপনার ভেরিকোসিল আদৌ সারাবে না। ঔষধের সার্বিক চরিত্র আপনার কেইস টেকিং করেই মূলত চিকিৎসক নির্ণয় করবেন এবং ঔষধটি একটি নির্দিষ্ট শক্তিতে এবং নির্দিষ্ট মাত্রায় আপনার শরীরে প্রয়োগ করবেন। এখানে চিকিৎসক কেইস টেকিং এর সময় আপনার পিপাসা, জিহ্বা, লালা, ক্ষুধা, খাদ্য, ঘুম, ঘাম, পায়খানা, প্রস্রাব, স্বপ্ন, কিসে আপনার সমস্যা বাড়ছে, কখন বাড়ছে, কিসে সমস্যা কমছে এবং কখন কমছে এই সব কিছু আপনার থেকে জেনে নিবেন এবং নোট করবেন।
এলোপ্যাথিতে রোগ নির্ণয়ের জন্য নানা প্রকার মেডিক্যাল টেস্টের প্রয়োজন হয়। যার জন্য আলাদা টাকা পয়সা খরচ করতে হয়। হোমিওপ্যাথিতে এর জন্য কোন টেস্ট করে আলাদা ভাবে টাকা পয়সা খরচ করার প্রয়োজন নেই। হোমিও ঔষধ প্রয়োগের রয়েছে নির্দিষ্ট নিয়মনীতি। এখানে কেইস টেকিং করে ঔষধ সিলেকশন করতে হয় ক্রনিক রোগের ক্ষেত্রে। তাই আপনার হিস্ট্রি নেয়ার সময় চিকিৎসককে কিছুটা সময় ও প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে সাহায্য করতে হবে আপনার নিজের স্বার্থেই অন্যথায় আপনি নিজেই ক্ষতিগ্রস্থ হবেন। 
কেইস টেকিং করে চিকিৎসক আপনার জন্য নির্দিষ্ট ঔষধটি বের করে সেটি নির্দিষ্ট শক্তিতে এবং নির্দিষ্ট মাত্রায় আপনার শরীরে প্রয়োগ করবেন। তাতে দেখা যায় প্রপার হোমিও ট্রিটমেন্ট নিলে খুব জটিল প্রকৃতির ভেরিকোসলও ধীরে ধীরে সেরে যায়। ব্যক্তি বিশেষে আরোগ্য লাভের সময়টা হয়তো  কম বেশি লাগে। 
ভেরিকোসিলের চিকিৎসা নেয়ার জন্য পুরুষরা যখন হোমিও ডাক্তারের কাছে আসেন তখন তাদের রোগের তীব্রতা থাকে অনেক বেশি এবং এর সাথে আরো অনেক রোগেও তারা আক্রান্ত থাকেন। অর্থাৎ রোগীর মধ্যে এক সাথে অনেকগুলি সমস্যা থাকে। চিকিৎসক রোগীর পা থেকে মাথা পর্যন্ত বিস্তারিত হিস্ট্রি নিয়ে ঠিকঠাক ওষুধ প্রয়োগ করার পরও দেখা যায় রোগীর রোগ সারছে না অনেক ক্ষেত্রেই। এবার বুঝেন অবস্থা ! যেখানে ঠিকঠাক ভাবে ঔষধ প্রয়োগ করে চিকিৎসককেই রোগ সারাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে সেখানে আপনি ইন্টারনেট সার্চ করে ঔষধের নাম বের করে নিজে নিজে ঔষধ প্রয়োগ করছেন আপনার শরীরে। এবার হয়তো আপনি চিন্তায় পড়ে গেলেন !

যখন এভাবে ঔষধ প্রয়োগ করার পরও কোন রেসপন্স আসছে না তখন এক্সপার্ট হোমিও চিকিৎসকরা মূলত রোগীর ভিন্ন একটি দিকে দৃষ্টি দেন আর সেটা হলো তার কনস্টিটিউশন (Constitution)। বিষয়টি হয়তো আপনার কাছে এবার কিছুটা হলেও জটিল মনে হতে পারে। হ্যা, হবারই কথা। কারণ এইগুলি নিতান্তই হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকদের বিষয়, যারা বছরের পর বছর পড়াশোনা করে এই বিদ্যা আয়ত্ব করেছেন। এটা হোমিওপ্যাথির বাহিরে কোন এলোপ্যাথিক ডাক্তার বা সাধারণ লোকদের বিষয় নয়। আসুন দেখি পেসেন্টরা কি কি কনস্টিটিউশনের হয়ে থাকে এবং সেগুলির ক্ষেত্রে কি কি মেডিসিন হতে পারে। এখানে মূলত আমি Synthesis Repertory রেপার্টরি থেকেই বিষয়টি আপনাদের দেখাচ্ছি -
কনস্টিটিউশন (Constitution) অনুসারে ঔষধগুলিও আপনারা দেখুন -
এবার আপনার চিকিৎসক বেশ অভিজ্ঞতা সম্পন্ন হলেই তিনি আপনার কনস্টিটিউশনে হাত দিবেন। তখন হয়তো কেইস টেকিং এর পরিধি আরো বাড়বে। চিকিৎসক আপনার ছেলেবেলা থেকে আজ পর্যন্ত সকল রোগের ইতিহাস, আপনার জীবনদর্শন, আপনার পিতা-মাতা, দাদা-দাদি, নানা-নানী কে কোন রোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন সব কিছুই রেকর্ড করে আপনার কনস্টিটিউশন অনুসারে আপনার জন্য উপযুক্ত ঔষধ বের করবেন। এবার ভাবুন, ভেরিকোসিলের জন্য আপনি হয়ত ইন্টারনেট ঘেটে কয়েকটা ঔষধের নাম জেনেই আত্মতৃপ্তি নিয়ে বসে ছিলেন। অথচ এই সমস্যার জন্য আপনার চিকিৎসককে কতগুলি ঔষধ চিন্তা করতে হচ্ছে। 

এখন হয়তো আপনি কিছুটা হলেও বুঝতে পারছেন, শুধু হোমিও ঔষধ রোগের নাম ধরে এলোপ্যাথির মতো খেয়ে গেলেই রোগ সেরে যায় না। এর জন্য রয়েছে নির্দিষ্ট নিয়ম নীতি। তাই এক্সপার্ট কোন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে চিকিৎসা নেয়া অধিক জরুরি। ভালো থাকুন, ধন্যবাদ।

যে বিষয়গুলি আপনি জেনেছেন -

  • ভেরিকোসিল থেকে মুক্তি
  • ভেরিকোসিল এর ঔষধ
  • অন্ডকোষের ডাক্তার
  • ভেরিকোসিল রোগের প্রতিকার
  • অন্ডকোষের রগ ফুলে যাওয়া
  • অন্ডকোষের হোমিও চিকিৎসা
  • অন্ডকোষের রোগ ও চিকিৎসা
  • অন্ডকোষে ব্যথার কারণ ও প্রতিকার
  • ঝুলে যাওয়া অন্ডকোষ টাইট করার উপায়
  • অন্ডকোষ ঝুলে যাওয়ার কারণ ও প্রতিকার
  • ভেরিকোসিল রোগের হোমিও ঔষধ
  • অন্ডকোষের ভেরিকোসিল চিকিৎসা
Dr Imran
ডাঃ দেলোয়ার জাহান ইমরান
ডিএইচএমএস, ডিএমএস, বিএসসি এন্ড এমএসসি; ঢাকা
রেজিস্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক (রেজিঃ নং-৩৩৪৪২)
যোগাযোগঃ আনোয়ার টাওয়ার, আল-আমিন রোড, কোনাপাড়া, যাত্রাবাড়ী-ডেমরা রোড, ঢাকা।
Phone: +88 01671-760874; 01977-602004 || E-mail : delowaridb@gmail.com
About Me: Profile ➤ Facebook ➤ YouTube ➤