বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল, ২০১৯

গ্যাংরিন Gangrene পচনশীল দূষিত ঘা! ডায়াবেটিক রোগীদের পচনশীল ক্ষত চিকিৎসা

গ্যাংরিন Gangrene হলো টিস্যু বা সেলের মৃত্যু ঘটার ফলে তৈরী হওয়া পচনশীল দূষিত ক্ষত। এটি মূলত নেক্রোসিস ঘটার ফলে অর্থাৎ টিস্যু বা সেলের মৃত্যু ঘটার ফলে হয়ে থাকে। যখন টিস্যুতে কোন কারণে রক্তের সরবরাহ খুবই কমে যায় বা বন্ধ হয়ে যায় অথবা ব্যাক্টেরিয়ার গুরুতর সংক্রমণ ঘটে তখনই Gangrene গ্যাংরিন/গ্যাংগ্রিন এর মতো সমস্যা তৈরী হয়ে থাকে। সাধারণত ক্লোসট্রিডিয়াম পারফ্রিঞ্জেন্স নামক ব্যাকটেরিয়া, গ্রুপ এ স্ট্রেপ্টোকোক্কাস, স্ট্যাফাইলোকোক্কাস অরিয়াস এবং ভিব্রিও ভালনিফিকাস এর কারণে এই রোগ হয়ে থাকে। এই ব্যাকটেরিয়া সর্বত্র বিরাজ করে। এটি শরীরের ভিতরে প্রবেশ করে বিষাক্ত গ্যাস উৎপন্ন করে দেহের টিস্যু, কোষ ও রক্তনালীকে নষ্ট করে দেয় এবং গ্যাস গ্যাংরিন তৈরী করে থাকে।

এই রোগটি হঠাৎ করেই হয়ে থাকে। সাধারণত কোন আঘাত প্রাপ্ত স্থানে বা অপারেশন হয়েছে এমন অংশে এটি বেশি হয়ে থাকে, এসময় ব্যক্তি কোন ধরনের জ্বালাপোড়া বা ব্যথা অনুভব করে না। রক্তনালীর বিভিন্ন সমস্যা যেমন - অ্যাথেরোস্ক্লেরোসিস, ডায়াবেটিস বা কোলন ক্যান্সারে আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে এই রোগ হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি। সাধারণতঃ হাত, পা, পায়ের আঙ্গুলে বেশি হতে দেখা যায় তবে তা আমাদের পেশী এবং অভ্যন্তরীণ অঙ্গেও হতে পারে।

শরীরে কোন অঙ্গে রক্ত সরবরাহ কমে গেলে বা সম্পূর্ণ বন্ধ হয়ে গেলে আক্রান্ত স্থানের সেল অথবা টিস্যুর মৃত্যু ঘটে। আঘাতজনিত কারণে দেহের কোন অংশের রক্তনালী ছিড়ে গেলে ঐ অংশে পচনশীল ক্ষতের সৃষ্টি হতে পারে। আবার ডায়াবেটিসের মতো কিছু কিছু রোগের কারণে বিভিন্ন অংশে বিশেষ করে হাত পায়ে পচনশীল ক্ষতের সৃষ্টি হতে পারে।

গ্যাংরিন বিভিন্ন প্রকারের হয়ে থাকে - শুকনো, ভেজা এবং গ্যাস গ্যাংরিন। একেকটির ক্ষেত্রে একেক রকম লক্ষণ প্ৰকাশ করতে পারে। গ্যাংরিন Gangrene একটি গুরুতর অবস্থা সংঘটিত হয় শরীরের টিস্যু মারা গেলে। ডায়াবেটিস ও দীর্ঘমেয়াদী ধূমপান গ্যাংরিন এর ঝুঁকি বৃদ্ধি করে। নিম্নে বিভিন্ন প্রকার গ্যাংরিন এর বৈশিষ্টগুলি সম্পর্কে আলোকপাত করা হল-

শুকনো গ্যাংরিন Dry Gangrene

  • এই প্রকার গ্যাংরিন মূলত ডায়বেটিস রোগীদের বেলায় বেশি দেখা যায়
  • ধীরে ধীরে রোগের বিস্তার হয়
  • খুব বেশি দুর্গন্ধ থাকে না৷
  • আক্রান্ত চামড়া শুকনো এবং কখনো কালো বর্ণের হয়ে থাকে 
  • সাধারণত ইনফেকশন থাকে না

ভেজা গ্যাংরিন Moist Gangrene

  • সাধারণত ইনফেকশন থাকে
  • ক্ষতস্থান থেকে দুর্গন্ধ বের হবে
  • দ্রুত রোগের বিস্তার হয় 
  • আক্রান্ত চামড়া ভেঁজা ভেঁজা হয়ে থাকে
  • প্রথম দিকে আক্রান্ত স্থানের চামড়া লালচে এবং পরে নীলাভ বর্ণ ধারণ করে 

গ্যাস গ্যাংরিন Gas Gangrene

  • চামড়ার ক্ষতস্থানে ইনফেকশন থাকে
  • আক্রান্ত স্থান থেকে দুর্গন্ধ বের হয়
  • আক্রান্ত স্থান লালচে বর্ণের হয়ে থাকে 
  • ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ করে গ্যাস তৈরি করে 
  • দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে রোগীর মৃত্যু হতে পারে
ডায়াবেটিক রোগীদের অনেকেরই পায়ে ঘা বা আলসার হয়ে থাকে। দীর্ঘদিন ডায়াবেটিস থাকার কারণে রোগীর পায়ে যে আলসার হয়ে থাকে তাকে ডায়াবেটিক ফুট বা ডায়াবেটিক ফুট সিন্ড্রম বলা হয়ে থাকে। পায়ের ঘা বিস্তার লাভ করলে একপর্যায়ে পচন ধরে অর্থ্যাৎ গ্যাংরিন সৃষ্টি হয়। গ্যাংরিন তৈরী হলে তীব্র জ্বালা-যন্ত্রনাসহ কঠিন কষ্ট করতে হয় ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীদের। তাছাড়া পৃথিবীতে যত রোগীর পা কাটা লাগে তার মধ্যে ৮৪% হল ডায়াবেটিক ফুট বা পা। অথচ প্রপার হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা নিলে ডায়াবেটিক রোগীদের গ্যাংরিন ভালো হয়ে যায়। রোগীর পা বা আক্রান্ত অঙ্গ কেটে ফেলার প্রয়োজন পড়ে না।

গ্যাংরিন এর চিকিৎসা 

গ্যাংরিন এর উন্নত চিকিৎসা রয়েছে হোমিওপ্যাথিতে। এর জন্য এক্সপার্ট কোন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে চিকিৎসা নিন। একসময় দেখবেন প্রপার একটা হোমিও চিকিৎসার মাধ্যমেই এই সমস্যাটি দূর হয়ে রোগী স্বাভাবিক বা সুস্থ হয়ে উঠেছেন। হোমিওপ্যাথিতে গ্যাংরিন চিকিৎসার সাফল্য অনেক বেশি। রেজিস্টার্ড এবং দক্ষ একজন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে চিকিৎসা নিলে রোগীর আক্রান্ত অঙ্গ কেটে ফেলার প্রয়োজন পড়ে না বরং সমস্যাটি দূর হয়ে আক্রান্ত অঙ্গ পূনরায় স্বাভাবিক হয়ে উঠে।

যা যা জেনেছেন

  • Gangrene
  • Gas gangrene
  • গ্যাংগ্রিন এর হোমিও চিকিৎসা
  • গ্যাংরিন এর চিকিৎসা
  • Gangrene meaning in bengali
Dr Imran
ডাঃ দেলোয়ার জাহান ইমরান
ডিএইচএমএস, ডিএমএস, বিএসসি এন্ড এমএসসি; ঢাকা
রেজিস্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক (রেজিঃ নং-৩৩৪৪২)
যোগাযোগঃ আনোয়ার টাওয়ার, আল-আমিন রোড, কোনাপাড়া, যাত্রাবাড়ী-ডেমরা রোড, ঢাকা।
Phone: +88 01671-760874; 01977-602004 || E-mail : delowaridb@gmail.com
About Me: Profile ➤ Facebook ➤ YouTube ➤