সোমবার, ৩১ মে, ২০২১

১৫ বছরের অ্যাজমা নির্মূল! হাঁপানি, শ্বাসকষ্ট রোগের আধুনিক চিকিৎসা

আপনারা হয়তো জানেন, এলোপ্যাথিতে অ্যাজমা, হাঁপানি, শ্বাসকষ্ট নির্মূলের স্থায়ী কোন চিকিৎসা নেই। হাঁপানি রোগে তীব্র শ্বাসকষ্টের মুহূর্তে সাময়িক সময়ের জন্য কষ্ট লাঘব করার ঔষধ থাকলেও এর কোন স্থায়ী সমাধান আজ পর্যন্ত এলোপ্যাথি আবিষ্কার করতে পারেনি। অন্যান্য ক্রনিক ডিজিসের মতো এই সমস্যায়ও এলোপ্যাথিক মেডিক্যাল মাফিয়ারা রোগ পুষে রেখে সারাজীবন ধরে মানুষের সাথে বিজনেসের নীতিতে চলছে। তাছাড়া শ্বাসকষ্ট নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য এলোপ্যাথিক ক্ষতিকর স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধসহ অন্যান্য রাসায়নিক ঔষধের দীঘদিন যাবৎ ক্রমাগত প্রয়োগে বিভিন্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় আরো জটিল প্রকৃতির স্বাস্থ্য সমস্যার সৃষ্টি হবে সেটাও অস্বাভাবিক নয়। অথচ প্রপার হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসায় দীর্ঘদিনের পুরাতন অ্যাজমা বা হাঁপানি নির্মূল হয়ে যায় চিরতরে।

ইতিমধ্যেই আপনারা জেনেছেন, আমরা যে সব রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকি সেগুলি মূলত আমাদের DNA তে প্রিডোমিনেন্ট কিছু True Disease এর তৈরী করা কিছু লক্ষণ বা উপসর্গ। ঠিক তেমনি অ্যাজমা বা হাঁপানি সমস্যার মূলেও রয়েছে True Disease. অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আমরা দেখে থাকি - যারা এই সমস্যায় আক্রান্ত হন তারা মূলত Tubercular Diathesis এর পেশেন্ট। বর্তমান বিশ্বে একমাত্র হোমিওপ্যাথিই আপনার DNA তে প্রিডোমিনেন্ট True Disease কে ডায়নামিক হোমিও ঔষধ প্রয়োগের মাধ্যমে রিসিসিভ করতে পারে আর তাই হোমিও চিকিৎসায় অ্যাজমা বা হাঁপানি স্থায়ী ভাবে নির্মূল হয়ে যায়। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে দক্ষ একজন হোমিও চিকিৎসক নির্বাচন করতে হবে যিনি হোমিওপ্যাথিক নিয়মনীতি অনুসারে আপনাকে যথাযথ চিকিৎসা দিতে পারবেন।

অপরদিকে এলোপ্যাথি স্থানিক ভাবে শ্বাসপথে বায়ু চলাচলে বাধাকে সাময়িক ভাবে দূর করে শ্বাসকষ্টের উপশম ঘটায় মাত্র স্থায়ীভাবে আদৌ হাঁপানি নির্মূল করতে পারে না। কারণ এলোপ্যাথিক চিকিৎসা শাস্ত্র আপনার DNA তে প্রিডোমিনেন্ট True Disease কে নির্ণয় করে সেটিকে রেসিসিভ করার চিকিৎসা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ। আর তাই শ্বাসপথে বায়ু চলাচলে বাধাকে এলোপ্যাথিক পদ্ধতিতে দূর করলে কিছুটা সময় পর আবার সেখানে একই বাধা তৈরী হয়ে শ্বাসকষ্ট সমস্যার সৃষ্টি করে।
একজন অ্যাজমা পেশেন্টের ভয়াভয় প্রকৃতির হাঁপানি বা শ্বাসকষ্টের সমস্যা ছিল। যিনি প্রায় ১৫ বছর ধরে এই সমস্যায় ভুগছিলেন। দিনে ৫ বার ইনহেলার নেয়া লাগলো এবং সাথে শ্বাসকষ্টের জন্য এলোপ্যাথিক ঔষধও খাওয়া লাগতো। দীর্ঘদিন যাবৎ এলোপ্যাথিক ওয়ান টাইম রাসায়নিক ঔষধ ক্রমাগত ব্যবহারের ফলে মানুষিক সমস্যাসহ শরীরে আরো জটিল জটিল সমস্যা জেগে উঠা শুরু করলে তিনি এক সময় হোমিও চিকিৎসার তথ্যাবধানে চলে আসেন। মাত্র ৫ মাসের প্রপার হোমিও চিকিৎসায় তিনি ক্রনিক অ্যাজমা এবং মানুষিক সমস্যা থেকে চিরতরে মুক্তি লাভ করেন।
Dr Imran
ডাঃ দেলোয়ার জাহান ইমরান
ডিএইচএমএস (বিএইচএমসি এন্ড হসপিটাল), ডিএমএস; ঢাকা
রেজিস্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক (রেজিঃ নং-৩৩৪৪২)
যোগাযোগঃ আনোয়ার টাওয়ার, আল-আমিন রোড, কোনাপাড়া, ডেমরা, ঢাকা।
Phone: +88 01671-760874; 01977-602004 (শুধু এপয়েন্টমেন্টের জন্য)
About Me: Profile ➤ Facebook ➤ YouTube ➤