মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯

জক ইচ Jock Itch দুই রানের বা উরুর মধ্যবর্তী স্থানে চুলকানিযুক্ত চর্মরোগ

দুই রানের বা উরুর মধ্যবর্তী স্থানে অস্বস্তিকর চুলকানিতে আক্রান্তদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যাই বেশি থাকে। এই চুলকানিকে বলা হয় হয় জক ইচ Jock itch বা Tinea Cruris. জক ইচ এক প্রকার রিং ওয়ার্ম বা দাদ। তবে এটি কিছুটা আলাদা ধরণের। সাধারণ চামড়ার বাইরের অংশে, নখে ফাঙ্গাল ইনফেকশনের কারণে এই রোগটি দেখা যায়। চামড়ার উপরিভাগে লাল বা খয়েরি রঙের র‍্যাশ দেখা যায় যা পানি ভর্তি থাকে, প্রচণ্ড চুলকায় এবং জ্বালাপোড়া হয়। এই রোগটি শরীরের কোন একটি অংশে হলে অন্যান্য অংশেও খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়া এটি বিভিন্নভাবে অন্যের শরীরেও ছড়িয়ে যায়।

এটি হল একটি ফাঙ্গাল সংক্রমণ, যা ছোঁয়াচে। ত্বকের উপরিতলের উপর ছত্রাকের বৃদ্ধিটি যা আর্দ্র এবং উষ্ণ হয়। তাই, খুবই টাইট বা ভেজা অন্তর্বাস পড়লে তা ঝুঁকির বিষয় হতে পারে। অতিরিক্ত ওজনের ব্যক্তিদের যাদের ত্বকের ভাজ ছুঁতে থাকে, তাদেরও একটি বিশাল ঝুঁকি থাকে। সংক্রামিত টাওয়েল, চাদর ইত্যাদি ব্যবহার করার মাধ্যমে জক ইচ ছড়াতে পারে। যেহেতু এটি ভিষন ছোঁয়াচে তাই সংস্পর্শের মাধ্যমে আপনার শরীরের অন্য অংশেও ছড়িয়ে যেতে পারে। এই অবস্থাটি মহিলাদের থেকে পুরুষদের বেশি প্রভাবিত করে। আমাদের শরীরের আর্দ্র স্থান যেমন কটিসন্ধি, উরু বা রানের সংযোগস্থল এবং নিতম্বে এই ফাঙ্গাস/ছত্রাক বেশি জন্মায়। সাধারণত শরীরের এই স্থানগুলোতে ঘাম বেশি হয়, তৈলাক্ত থাকে ফলে ফাঙ্গাস তার উপযুক্ত পরিবেশ পেয়ে যায়।

নারী ও পুরুষ উভয়ই এই রোগে আক্রান্ত হন, তবে নারীদের রোগের ধরন ও প্রতিকারের পদ্ধতি কিছুটা ভিন্ন, যা পরবর্তী লেখায় বিস্তারিত তুলে ধরা হবে। এই রোগের ভাইরাস বিভিন্নভাবে এক শরীর থেকে অন্য শরীরের ছড়িয়ে পড়তে পারে। ব্যবহৃত পোশাক, পানি, বিছানা ইত্যাদি এর বাহক হিসেবে কাজ করে।

জক ইচ Jock Itch - লক্ষণ

  • উরুর সংযোগস্থল ও নিতম্বে তীব্র চুলকানি ভাব অনুভূত হওয়া
  • লাল বা খয়েরি রঙয়ের র‍্যাশ ও পানি ভর্তি ফুসকুড়ি দেখা দেয়া
  • চুলকানোর পর এই পানি ভর্তি ফুসকুড়িগুলো ফেটে যাওয়া
  • আক্রান্ত স্থানে পানি লাগলে জ্বালাপোড়া করা
  • আক্রান্ত স্থান কালো এবং শুষ্ক হয়ে যাওয়া
  • আকারে গোল হয় ।
  • ক্ষতর জায়গাটা খুবই প্রবলভাবে চিহ্নিত হয়ে যায়
  • ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার সমকেন্দ্রিক বৃত্তের ভিতর স্বাভাবিক দেখতে চামড়া থাকতেও পারে।
  • ক্ষতটি একটু উঁচু দেখাবে
  • ক্ষতটি সহ ফোস্কা হতে পারে
  • চুলকুনি এবং অস্বস্তি সাধারণতভাবে দেখা যায়
  • ব্যায়াম করলে উপসর্গগুলি আরও খারাপ হয়

জক ইচ Jock Itch - চিকিৎসা

যেহেতু এটি মূলত একটি ফাঙ্গাল ইনফেকশন তাই এলোপ্যাথিতে বিভিন্ন প্রকার এন্টি-ফাঙ্গাল ঔষধের মাধ্যমে এর চিকিৎসা করা হয়ে থাকে। তবে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এই সকল এলোপ্যাথিক ঔষধ এই রোগ স্থায়ী ভাবে নিরাময়ে ব্যর্থ হয়ে থাকে এবং সমস্যাটি দিন দিন জটিল এক প্রকার চর্মরোগের রূপ ধারণ করে থাকে। তবে এর স্থায়ী চিকিৎসা মূলত হোমিওপ্যাথি। এর জন্য অভিজ্ঞ কোন হোমিও ডাক্তারের পরামর্শক্রমে চিকিৎসা নিন। 
Dr Imran
ডাঃ দেলোয়ার জাহান ইমরান
ডিএইচএমএস (বিএইচএমসি এন্ড হসপিটাল), ডিএমএস; ঢাকা
রেজিস্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক (রেজিঃ নং-৩৩৪৪২)
যোগাযোগঃ আনোয়ার টাওয়ার, আল-আমিন রোড, কোনাপাড়া, যাত্রাবাড়ী-ডেমরা রোড, ঢাকা।
Phone: +88 01671-760874; 01977-602004 || E-mail : delowaridb@gmail.com
About Me: Profile ➤ Facebook ➤ YouTube ➤