বুধবার, ১০ এপ্রিল, ২০১৯

Ankylosing Spondylitis কি? এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস কারণ, উপসর্গ এবং জটিলতা

অ্যানকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস (Ankylosing spondylitis) হল আমাদের শিরদাঁড়ার একপ্রকার বাত। এটি মূলত অক্ষীয় কঙ্কালতন্ত্রের দীর্ঘ মেয়াদী যন্ত্রণাদায়ক বাত ব্যাধি, মেরুদণ্ডের সন্ধি বা গাঁটের ব্যথা ও আড়ষ্টতা যার প্রধান উপসর্গ। কোমরের সন্ধি (Sacroiliac Joint) থেকে শুরু হয় রোগটা যা মেরুদণ্ডের অস্থিসন্ধিসহ অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ আক্রান্ত হয়। তবে এর রয়েছে উন্নত হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা। এর জন্য এক্সপার্ট কোন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে চিকিৎসা নিন।

এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস উপসর্গ

  • মূল উপসর্গ হলো কোমর ব্যথা। প্রথম দিকে মৃদু ব্যথা থাকে বলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে রোগী দেরি করে। কিন্তু এই ব্যথা আস্তে আস্তে তীব্র হয়।
  • কোমরে ব্যথা না হলেও বিভিন্ন অস্থিসন্ধি, যেমন : পায়ের বড় গিঁট, কনুই, হাঁটু, পিঠের নিম্নাংশে ব্যথা হতে পারে বা ফুলে যেতে পারে। কোনো পায়ে বেশি আবার কোনো পায়ে ব্যথা কম হতে পারে।
  • ঘুমের সময় বিছানায় এপাশ-ওপাশ করে। রাতে ব্যথা বেড়ে ঘুম ভেঙে যায়।
  • ঘুম থেকে ওঠার পর কোমর অনড় হয়ে জমে থাকে। বেলা বাড়া ও হাঁটাচলা শুরু করলে ব্যথা আস্তে আস্তে কমতে থাকে।
  • বিশ্রাম নিলে ব্যথা বাড়ে আবার কাজকর্ম শুরু করলে ব্যথা কমতে থাকে।
  • পায়ের মাংসপেশিগুলো যেখানে হাড়ের সঙ্গে লেগে থাকে, সেসব স্থানে আক্রমণ করতে পারে এবং ব্যথা হতে পারে।
  • অনেকের শুধু চোখে আক্রমণ করতে পারে
  • ত্বকে অস্বাভাবিক অনুভূতি হতে পারে

এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস কারণ

পৃথিবীর ৮০ শতাংশ মানুষের জীবনের কোনো না কোনো সময় কোমরে ব্যথা হয়। কিছু ব্যথা আছে কারণ ছাড়াই হয়। আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমিউন সিস্টেম থাকে। এর কাজ হলো শরীর পাহারা দেওয়া। কিন্তু এরাই হঠাৎ করে প্রতারণা বা বিদ্রোহ করে বসে। তখন এরাই জয়েন্ট, মাংসপেশি, হাড় প্রভৃতিকে আক্রমণ করে। এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস জাতীয় বাত ব্যথা যে কারো হতে পারে। এখন পর্যন্ত এর সুনির্দিষ্ট কারণ জানা যায়নি, তবে এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিসের জন্য কিছু জিনিসকে দায়ী করা হয়। ২০-২৫ শতাংশ ক্ষেত্রে জেনেটিক কারণে বা বংশপরম্পরায় এ রোগটি হয়। কিছু কিছু ভাইরাসও এর সঙ্গে জড়িত। কোনো ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ করলে এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস হতে পারে।

এনকাইলোজিং স্পন্ডিলাইটিস চিকিৎসা

এই সমস্যার একটি আদর্শ চিকিৎসা হলো হোমিওপ্যাথি। এর জন্য অবশ্যই আপনাকে এক্সপার্ট কোন হোমিও চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে চিকিৎসা নিতে হবে। 
Dr Imran
ডাঃ দেলোয়ার জাহান ইমরান
ডিএইচএমএস, ডিএমএস, বিএসসি এন্ড এমএসসি; ঢাকা
রেজিস্টার্ড হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক (রেজিঃ নং-৩৩৪৪২)
যোগাযোগঃ আনোয়ার টাওয়ার, আল-আমিন রোড, কোনাপাড়া, যাত্রাবাড়ী, ঢাকা।
ফোন : ০১৬৭১-৭৬০৮৭৪ এবং ০১৯৭৭-৬০২০০৪
প্রোফাইল ➤ ফেইসবুক ➤ ইউটিউব ➤